Print

তিন কোটি টাকার জন্য বাবাকে খুন

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ০৮.০৩.২০১৬

তিন কোটি টাকা নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে বাবাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে দুই ছেলে।

আত্মীয়-স্বজনেরা এ খবর পাওয়ার পর মৃতের বাড়িতে দ্রুত ছুটে গেলে তারা নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান।এদিকে ‘স্ট্রোকে’ মারা গেছেন— এমন বক্তব্য দিয়ে বাবার মৃত্যুর খবর মাইকে প্রচার করেছে নিহতের দুই ছেলে। তাদের অভিযোগ,

তবে এ ঘটনায় পক্ষে-বিপক্ষে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য পাওয়া গেছে। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।হবিগঞ্জ সদর উপজেলার দরিয়াপুর গ্রামের মৃত মোজাফফর আলীর ছেলে কিতাব আলী হবিগঞ্জ শহরের মাহমুদাবাদ এলাকায় বসবাস করতেন। সম্প্রতি কিতাব আলী বিভিন্ন স্থানে ৩ কোটি টাকার জমি বিক্রি করে। জমি বিক্রির টাকা নিয়ে তার দুই ছেলের সঙ্গে কিতাব আলীর বিরোধ বাধে।

বৃহস্পতিবার (৩ মার্চ) সন্ধ্যায় কিতাব আলী মারা গেছে মর্মে তার দুই ছেলে মাইকে প্রচার করে। এ খবর শুনে আশপাশের লোকজন তাকে দেখার জন্য বাড়িতে যান। এ সময় কিতাব আলীর শরীরে বিভিন্ন আঘাতের চিহ্ন দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা।

বিষয়টি পুলিশকে জানালে রাত সাড়ে ১১টায় সদর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় কিতাব আলীর আত্মীয়-স্বজনরা বলেছেন, তাকে টাকার জন্য পরিকল্পিতভাবে ছেলেরা হত্যা করেছেএ ব্যাপারে নিহত কিতাব আলীর ছোট বোন জমিলা খাতুন ও পুতুলা আক্তার জানান, টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে ছেলেরা তাকে হত্যা করে স্ট্রোকের নাটক সাজিয়েছেন। কিতাব আলীর ভাই বিলাত মিয়া অভিযোগ করেন, টাকার জন্য তার ভাইকে হত্যা করা হয়েছে।

হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন জানান, নিহতের স্বজনদের মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের আগে বলা যাচ্ছে না হত্যা না কি স্বাভাবিক মৃত্যু।

তবে নিহত কিতাব আলীর দুই ছেলে আলআমিন ও জুয়েল মিয়া জানান, তার বাবা স্ট্রোক করে স্বাভাবিক মৃত্যুবরণ করেছেন। তাদের ফাঁসানোর চেষ্টা চলছে।