Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Premier Bank Ltd

তিন আসামির আত্মসমর্পণে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ

বিডিনিউজডেস্ক.কম | তারিখঃ ৩১.০৮.২০১৫

সিলেটে শিশু সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার প্রধান আসামি কামরুল হাসানসহ তিনজনকে আগামী ৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণের জন্য পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

আজ সোমবার সিলেট মহানগর হাকিম-১-এর আদালতের বিচারক সাহেদুল করিম এ আদেশ দেন। গত ২৪ আগস্ট রাজন হত্যা মামলায় অভিযোগপত্র আমলে নেন আদালত। একই সঙ্গে অভিযুক্ত তিন পলাতক আসামি কামরুল ইসলাম, তাঁর ভাই শামীম আহমদ ও পাভেলকে গ্রেপ্তারে পরোয়ানা জারিসহ তাঁদের মালামাল ক্রোকের নির্দেশ দেওয়া হয়। তাঁদের মধ্যে কামরুলকে সৌদি আরবে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন প্রবাসীরা। এই মামলার ১৩ আসামির মধ্যে ১০ জন জেলহাজতে রয়েছেন।

গত ১৬ আগস্ট রাজন হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিলেট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক সুরঞ্জিত তালুকদার ১৩ জনকে অভিযুক্ত করে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্রে কামরুল, তাঁর ভাই শামীম আহমদ ও পাভেলকে পলাতক দেখানো হয়। এ ছাড়া বাকি অভিযুক্তরা হলেন কামরুলের ভাই আলী হায়দার, মুহিদ আলম, ময়না চৌকিদার, রুহুল আমিন, তাজউদ্দিন আহমদ বাদল, দুলাল আহমদ, নুর মিয়া, ফিরোজ মিয়া, আছমত উল্লাহ ও আয়াজ আলী।

এদিকে, রাজন হত্যা মামলায় গ্রেপ্তার মুহিদ আলমের স্ত্রী লিপি বেগম এবং শ্যালক ইসমাইল হোসেন আবলুছের নাম অভিযোগপত্র থেকে বাদ দেওয়া হয়।

গত ৮ জুলাই সকালে সিলেট শহরতলির কুমারগাঁওয়ে চোর সন্দেহে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয় শিশু রাজনকে। পরে নির্যাতনের ভিডিওচিত্র ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয় দুর্বৃত্তরা। বিষয়টি দেশ-বিদেশে সমালোচনার ঝড় ওঠে।