Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Bangadesh Manobadhikar Foundation

বিডিনিউজডেস্ক.কম| তারিখঃ ২১.০৩.২০১৯

বাংলাদেশে অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে কার্যকর ও সফলভাবে অংশগ্রহণ করতে চাইছে জাতিসংঘের সহযোগী সংস্থাগুলো।

এজন্য ২০১৭-২০ সালের মধ্যে ১২২ কোটি ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে সংস্থাগুলো। প্রতিশ্রুত এ অর্থ সরকারকে পরিকল্পিতভাবে ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছে সংস্থাগুলো। পাশাপাশি বাংলাদেশের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা (২০২১-২৫ মেয়াদি) ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জনে সহযোগিতা চালিয়ে যাওয়ার বিষয়েও প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জাতিসংঘ।

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সঙ্গে বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পোসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধি দলের এক বৈঠকে এ নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠকে ইউএনডিপি, আইএলও, ইউএনএফপিএ, এফএও, ডব্লিউএইচওসহ জাতিসংঘের সংশ্লিষ্ট সব সংস্থার প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

বৈঠকে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বিশ্বব্যাপী চলমান অর্থনৈতিক মন্দা সত্ত্বেও বাংলাদেশ ধারাবাহিকভাবে ৭ শতাংশের উপরে প্রবৃদ্ধি অর্জন করে চলেছে। গত অর্থবছরেও ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে। চলতি অর্থবছরেও প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ হবে বলে প্রাক্কলন করা হয়েছে। আমরা স্বাস্থ্য, খাদ্য, শিক্ষাসহ প্রায় সব খাতেই অগ্রগতি অর্জন করেছি। ১০ বছর আগের বাংলাদেশ আর এখনকার বাংলাদেশের মধ্যে অনেক তফাত রয়েছে। বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। বাংলাদেশ বিনিয়োগের জন্যও উত্তম জায়গা। বাংলাদেশ দিন দিন শুধু সামনের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে।

এ সময় জাতিসংঘ বাংলাদেশের অগ্রগতির পথে কোনো শর্ত আরোপ করে উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করবে না বলে আশা প্রকাশ করেন অর্থমন্ত্রী। বরং বাংলাদেশকে তার অভীষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছতে জাতিসংঘ সহযোগী হিসেবে কাজ করবে বলে জোর প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি। এ সময় ২০৩০ সালের মধ্যেই বাংলাদেশকে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বৈঠকে বাংলাদেশের স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা খাতের পাশাপাশি সবচেয়ে পিছিয়ে পড়া মানুষের উন্নয়নে সরকারের বিশেষ কর্মসূচির বিষয়েও আলোচনা হয়। এ সময় বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতি, নারীর কর্মসংস্থান ও ক্ষমতায়ন নিয়ে প্রশংসা করেন জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক মিয়া সেপ্পো। একই সঙ্গে সামনের দিনগুলোয় বাংলাদেশ ও জাতিসংঘের মধ্যকার বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরো দৃঢ় হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এছাড়া বৈঠকে দেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধির মাত্রা নিয়েও বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন মিয়া সেপ্পো।