Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Bangadesh Manobadhikar Foundation

বিডিনিউজডেস্ক.কম| তারিখঃ ৩০.০৩.২০১৯

 

দেশের ক্যান্সার, কিডনি ও হূদরোগে আক্রান্ত রোগীদের জন্য যুক্তরাজ্যভিত্তিক অ্যাংলো-সুইডিশ কোম্পানি অ্যাস্ট্রাজেনেকার

ওষুধ বিপণনের দায়িত্ব পেয়েছে এমজিএইচ হেলথকেয়ার লিমিটেড। সম্প্রতি রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এক আলোচনা অনুষ্ঠানে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

ঢাকায় সুইডিশ ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্ট কাউন্সিল আয়োজিত ‘ড্রাইভিং অ্যাকসেস টু ইনোভেটিভ মেডিসিনস টু ইমপ্রুভ প্যাশেন্ট আউটকামস ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এ প্যানেল আলোচনায় উপস্থিত ছিলেন সুইডিশ রাষ্ট্রদূত শার্লটা স্কালাইটার, বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন, অ্যাস্ট্রাজেনেকার কোম্পানি প্রেসিডেন্ট নিতিন কাপুর।

নিতিন কাপুর বলেন, এ অংশীদারিত্ব চুক্তির মাধ্যমে অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও এমজিএইচ হেলথকেয়ারের যৌথ প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে দুরারোগ্য ব্যাধির চিকিৎসা সেবায় বৈজ্ঞানিক প্রযুক্তি নিজেদের হাতের মুঠোয় নিয়ে আসার সুযোগ সৃষ্টি হবে। এর ফলে অ্যাস্ট্রাজেনেকার হাত ধরে বাংলাদেশে প্রচলিত ক্যান্সার ও কার্ডিওভাসকুলার-মেটাবলিক-রেনাল ডিজিজের মতো অসংক্রমিত (এনসিডি) রোগের চিকিৎসায় উদ্ভাবনী সেবা প্রদানের পথ আরো প্রশস্ত হবে। উদ্ভাবনী ও টেকসই চিকিৎসা পাবেন বাংলাদেশের রোগীরা। রোগীর আরোগ্যলাভের জন্য সহযোগিতার ভিত্তিতেই সেবার মান উন্নয়নে অ্যাস্ট্রাজেনেকা সবসময় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

এমজিএইচ গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আনিস আহমেদ বলেন, গত এক দশক ধরে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে প্রায় ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে, যা বাংলাদেশের মতো একটি দেশের জন্য বড় অর্জন। অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে এ অংশীদারিত্বের মাধ্যমে রোগীদের কাছে উচ্চমানের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে কাজ করব আমরা। অ্যাস্ট্রাজেনেকার সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে আমরা সঠিক ওষুধ ও সেবা দিয়ে বাংলাদেশের রোগীদের সর্বোত্তম যত্নে রাখতে চাই। এজন্য এমজিএইচ হেলথকেয়ার লিমিটেড তার দেশজুড়ে বিস্তৃত বিক্রয় ও বিতরণ নেটওয়ার্কের মাধ্যমে অ্যাস্ট্রাজেনেকার সর্বোচ্চ মানের ওষুধ রোগীদের হাতের নাগালে পৌঁছে দেবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, সাম্প্রতিক সময়ে দেশে অসংক্রমিত রোগে মৃত্যুর হার বেড়েছে। এর মধ্যে কার্ডিওভাসকুলার রোগে ৩০ শতাংশ, ক্যান্সারে ১২ ও দীর্ঘস্থায়ী শ্বাসযন্ত্রের রোগে ১০ শতাংশ রোগীর মৃত্যু হচ্ছে।

অসংক্রমিত রোগের ওষুধ উৎপাদনে এরই মধ্যে বিশ্বে সাড়া ফেলেছে বিশ্বনন্দিত ফার্মাসিউটিক্যাল প্রতিষ্ঠান অ্যাস্ট্রাজেনেকা। শ্বাসযন্ত্র, অনকোলজি এবং কার্ডিওভাসকুলার, রেনাল ও মেটাবলিজম—এ তিন থেরাপিউটিক ক্ষেত্রেই চিকিৎসকদের চাহিদা অনুযায়ী ওষুধ উৎপাদনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছে। তাদের উৎপাদিত ওষুধ বিশেষ করে অটোইমিউনিটি, নিউরোসায়েন্স ও ইনফেকশন ম্যানেজমেন্টে অত্যন্ত কার্যকর।

অ্যাস্ট্রাজেনেকা বিশ্বের ১০০টিরও বেশি দেশে কাজ করে। আর প্রতিষ্ঠানটির উদ্ভাবনী ওষুধ ব্যবহার করছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের অসংখ্য মানুষ। এরই ধারাবাহিকতায় অনকোলজি, কার্ডিওভাসকুলার এবং রেনাল ও মেটাবলিজম রোগীদের জন্য কার্যকর ওষুধ নিয়ে বাংলাদেশে বিপণন কার্যক্রম শুরু করেছে অ্যাস্ট্রাজেনেকা।

দেশের অন্যতম ওষুধ পরিবেশক প্রতিষ্ঠান এমজিএইচ হেলথকেয়ার লিমিটেডের রয়েছে সারা দেশে বিস্তৃত বিপণন নেটওয়ার্ক। অ্যাস্ট্রাজেনেকা ছাড়াও সানোফির মতো আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ডের ওষুধ বিপণনের দায়িত্বে রয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

এমজিএইচ বিশ্বের ১৮টি দেশে ফ্যাশন, অটোমোটিভ, হেলথকেয়ার সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট, টোটাল কার্গো ব্যবস্থাপনা, বাজেট এয়ারলাইনস, ট্রাভেল পোর্টের গ্লোবাল ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম (জিডিএস), এফএম রেডিও, ব্র্যান্ডেড ফুড ফ্র্যাঞ্চাইজিস,  চা প্লান্টেশন ও রাইড শেয়ারিং ব্যবসায় জড়িত। শিগগিরই সৌদি আরব ও চীনে নিজস্ব কার্যালয় চালু করতে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।