Nabodhara Real Estate Ltd.

Khan Air Travels

Bangadesh Manobadhikar Foundation

বিডিনিউজডেস্ক.কম  

তারিখঃ১৩.০৫.২০১৫  

কঠোর ডায়েট ও ব্যায়ামের মাধ্যমে নিজের ওজন কমিয়ে আনার কাজটি অনেকেই করতে পারেন। কিন্তু সমস্যা হয় তখনই যখন এই ওজন কমিয়ে আনার পর তা ধরে রাখতে হয়।

অনেকেই এই কাজটি একেবারেই পারেন না। বিশেষ উদ্দেশ্যে ওজন কমিয়ে এনে পড়ে ব্যায়াম ডায়েট ছেড়ে দিয়ে আনার মোটা হতে থাকেন। কারণ এই কঠোর ব্যায়াম এবং ডায়েট দীর্ঘসময় ধরে চালিয়ে যাওয়া আসলেই দুঃসাধ্য একটি ব্যাপার। কিন্তু কিছু নিয়ম মেনে চললে খুব কঠিন ডায়েট এবং ব্যায়াম ছাড়াই চিরকাল স্লিম থাকতে পারবেন বেশ সহজেই। জানতে চান কীভাবে? চলুন শিখে নেয়া যাক কিছু গোপন উপায়।

১) অল্প অল্প খাবার খাবেন: খুব কঠিন ডায়েট করার প্রয়োজন নেই। ৩ বেলার পরিবর্তে ৫-৬ বেলা অল্প করে খাবার খাওয়ার অভ্যাস তৈরি করুন। ৩ বেলায় যা খেতেন সেটাই ভাগ করে ৫-৬ বেলাতে নিয়ে আসুন। একবারে বেশি খেলে খাবার হজম হতে দেরি হয় যার কারণে দেহে মেদ জমে। ৫-৬ বার খাবার খেলে একবারে কম খাওয়া হবে, মেদও জমবে না।                                                                                                                                                                                     খাবার খাওয়ার সাথে এবং পেট ভরার সাথে আমাদের চোখের দেখার একটি বিষয়ের যোগাযোগ রয়েছে। বড় একটি প্লেটে ২) ২)ছোটো প্লেটে খাবার খান: অল্প খাবার তুলে খেলে দ্বিতীয়বার খাবার খাওয়ার ইচ্ছা রয়ে যায়, মনে হতে থাকে পেট ভরেনি। গবেষণায় দেখা যায় ছোটো প্লেটে অল্প করে খাবার তুললে এই সমস্যাটি একেবারেই হয় না। খাবারও কমই খাওয়া হয়।

৩) পানীয়ের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন: পানি বাদে অন্যান্য যতো পানীয় পান করছেন তার সবগুলোর ব্যাপারে সর্তক থাকুন। কারণ পানীয়ের বাড়তি চিনিটাই আপনার জন্য ক্ষতিকর তা সে সফটড্রিংকসই হোক বা ফলের জুসই হোক না কেন। অল্প করে চুমুক দিয়ে পান করুন। একবারে পান করে ফেললে হিসাব থাকে না আপনি কতোটা পান করছেন এবং এর ফলাফল দেখা যায় শরীরে।

৪) ঘরে আনুন রেস্টুরেন্টের পরিবেশ: অবাক হচ্ছেন? কিন্তু অবাক হলেও সত্যি যে রেস্টুরেন্টের মতো পরিবেশ আপনাকে কম খেতে বাধ্য করবে। গবেষণায় দেখা যায়, ঘরেই আলো কমিয়ে একটু মিউজিক লাগিয়ে খেতে বসলে মানুষ অন্যান্য সময়ের তুলনায় কম খাবার খেয়ে থাকেন। এতে করে ওজনটা থাকে নিয়ন্ত্রনেই।

৫) নিজের কাজ নিজে করুন: ব্যায়াম ছেড়ে দিচ্ছেন ভালো কথা কিন্তু স্লিম হওয়ার ব্যাপারটা ধরে রাখতে চাইলে নিজের কাজ নিজে করার অভ্যাস তৈরি করে ফেলুন। যেমন, বাজার করা, ঘরের কাজ করা, এটা সেটা আনতে যাওয়া অর্থাৎ যেসকল কাজে একটু শারীরিক পরিশ্রম বেশি হয়। এতে কাজের কাজও হবে এবং স্লিম থাকাও যাবে।