মুদ্রণ

বিডিনিউজডেস্ক.কম   
তারিখঃ০৩.০৬.২০১৫   

জেলার লালবাগ এলাকা সংলগ্ন একটি চারতলা বিশিষ্ট ছাত্রীনিবাসের ময়লা ও দুর্গন্ধযুক্ত পানি মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে ফেলানোর ঘটনায় ওই ছাত্রীনিবাস ও পাশের হোটেলে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করেছেন বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা। বুধবার সকালে নগরীর লালবাগ এলাকার এ ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, লালবাগ এলাকার নুরানী ছাত্রীনিবাসে ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকার কারণে সেখানকার দুর্গন্ধযুক্ত পানি পাশের মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে গিয়ে পড়ে।

মসজিদ কমিটির লোকজন ছাত্রীনিবাসের মালিক আব্দুল হাকিমকে ব্যবস্থা নিতে বলেন। বার বার বলার পরেও তিনি কোনো পদক্ষেপ নেননি।

মঙ্গলবার দিনগত রাতে শবে বরাত উপলক্ষে ওই কবরস্থান এলাকায় সারা রাত মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

দুর্গন্ধের কারণে সেখানে মুসল্লিদের ইবাদত করতে অসুবিধা হওয়ায় বুধবার সকালে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা নুরানী ছাত্রীনিবাস ও নুরানী হোটেলসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে বলে জানা গেছে।

রংপুর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের জিলানী জানান, বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ছাত্রীনিবাসের মালিকের সঙ্গে যোগায়োগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।