মুদ্রণ

বিডিনিউজডেস্ক.কম 
তারিখঃ ১৭.০৬.২০১৫
নীলফামারীর ডিমলায় হাসপাতাল থেকে কামরুজ্জামান মঙ্গলু (২০) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।বুধবার সকালে লাশটি উদ্ধার করা হয়। কামরুজ্জামানের পরিবারের অভিযোগ তাকে হত্যা করা হয়েছে।

জানা যায়, জলঢাকা উপজেলার গোলমুণ্ডা গ্রামের আব্দুল জব্বারের মেয়ে শিউলী বেগমের সঙ্গে ৩ মাস আগে খালিশা চাপানি ইউনিয়নের ব্যাপারীটোলা মাদ্রাসা পাড়ার বাহারুল ইসলামের ছেলে কামরুজ্জামান মঙ্গলুর (২০) বিয়ে হয়। গত সোমবার বিকেলে একই ইউনিয়নের লালকুড়ার পাড়ের শিউলির ভগ্নিপতি তহিদুল ইসলামের বাড়িতে স্বামী-স্ত্রী বেড়াতে যান।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কামরুজ্জামান সেখানে কীটনাশক পান করলে পরিবারের লোকজন রাতে হাসপাতালে ভর্তি করেন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত ২টায় কামরুজ্জামানের মৃত্যু হয়।

কামরুজ্জামানের বাবা বাহারুল ইসলাম জানান, তার ছেলেকে হত্যার পর মুখে বিষ ঢেলে দেয়া হয়েছে। ঘটনার পর থেকে শিউলির ভগ্নিপতি তহিদুল ইসলাম আত্মগোপন করেছেন।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ডিমলা থানা পুলিশের উপপরিদর্শক তাজুল ইসলাম জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলার মর্গে পাঠানো হয়েছে। মরদেহের ময়নাতদন্তে হত্যার আলামত পাওয়া গেলে হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।